Friday, January 18, 2019
Login
Username
Password
  সদস্য না হলে... Registration করুন
বেতন-ভাতা অনেক বাড়ানো হয়েছে, তাই দুর্নীতি করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে                 বিএনপির প্রতিনিধির অনুপস্থিতিতেই অনুষ্ঠিত হয়েছে ঐক্যফ্রন্টের জরুরি বৈঠক                 সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের মতো দুর্নীতির বিরুদ্ধেও জিরো টলারেন্স নীতি অব্যাহত থাকবে                  বিরোধী দলের আসনে বসবেন ১৪ দলের শরিকরা                  একাদশ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত এমপিদের শপথের বৈধতা নিয়ে রিট খারিজ                 বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে ইরানের রাষ্ট্রদূতের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান                  টিআইবির প্রতিবেদন ভিত্তিহীন,আমরা পুরোপুরি তা প্রত্যাখ্যান করছি                 দেশের জনগণ জাতীয় নির্বাচন নিয়ে টিআইবি’র অলিক ও অবিশ্বাস্য রূপকথার গল্পের জবাব দেবে                 একাদশ সংসদ নির্বাচন সম্পর্কিত টিআইবি প্রকাশিত প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেছেন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম                 অবশেষে নকশার জটিলতা থেকে পুরোপুরি মুক্ত হলো পদ্মা সেতু                 একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্যয়সীমা লঙ্ঘন করে গড়ে পাঁচগুণের বেশি খরচ করেছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা                  সর্বক্ষেত্রে ট্রাফিক আইন মেনে চলার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী                  নির্বাচন নিয়ে প্রতারণা করায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে আগে জাতির কাছে ক্ষমা চাইতে হবে                  একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শেখ হাসিনার ক্যারিশম্যাটিক নেতৃত্বে মহাবিজয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ                 

মূল সংবাদ


ঐক্যফ্রন্টের সাত দফা দাবি না মানলে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হতে দেয়া হবে না
সকালের আলো প্রতিবেদক :
সময় : 2018-11-09 19:18:42

আজ শুক্রবার (৯ নভেম্বর) জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শরিক দল বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ঐক্যফ্রন্টের সাত দফা দাবি না মানলে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হতে দেয়া হবে না।

বেগম খালেদা জিয়াকে সরকার মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে আটকে রেখেছে। অমানুষিক কষ্ট দিয়ে রেখেছে।

তিনি বলেন,আমাদের দাবি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে, সংসদ ভেঙে দিতে হবে, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করতে হবে। তা না হলে নির্বাচন হবে না।

ফখরুল বলেন, সব জাতীয় নেতারা আমরা এক হয়েছি। গণতন্ত্র ও মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্য। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করার জন্য। কারণ গণতন্ত্র মানে দেশনেত্রী, দেশনেত্রী মানে গণতন্ত্র।

তিনি বলেন, গণতন্ত্রের জন্য, এই দেশের জন্য নিজের সারাটা জীবন উজার করে দিয়েছেন খালেদা জিয়া। অল্প বয়সে নিজের স্বামীকে হারিয়েছেন, স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় নির্যাতিত হয়েছেন। দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করেছেন।

জনসভার প্রধান বক্তা মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের কথা খুব স্পষ্ট- নির্বাচনের সমান মাঠ তৈরি করতে হবে, সব দলকে সমান অধিকার দিতে হবে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে তাকে কাজ করতে দিতে হবে। অন্যথায় তফসিল, নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হবে না।

সরকারের সব মন্ত্রীদের পদ ও সুযোগ-সুবিধা ত্যাগ করতে হবে। সব রাজনৈতিক দলকে সমতাভিত্তিক সুযোগ দিতে হবে। তবেই দেশে একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হতে পারে। তবেই আমরা সেই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব।

তিনি বলেন, দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ সারা দেশের বন্দি দলীয় নেতাকর্মীদের মুক্তি দিতে হবে। অন্যথায় নির্বাচনী এই তফসিল গ্রহণযোগ্য হবে না। আমরা আগেই এই তফসিল প্রত্যাখ্যান করেছি। আমরা এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যেতে পারি না।

মির্জা ফখরুল বলেন, এই সরকার রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া। সরকার পুলিশ দিয়ে রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের নিষ্ঠুরভাবে দমন করছে। জনগণকে সব অধিকার থেকে বঞ্চিত করছে। এদেশের মানুষ একটি গণতান্ত্রিক সমাজ ও মুক্ত বাংলাদেশ দেখতে চায়।

নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মুক্ত খালেদা জিয়া ছাড়া কোনো নির্বাচনেই অংশ নেবে না জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। সামনে আরও ভয়াবহ সঙ্কট আসছে। দেশে গণতন্ত্র থাকবে কি থাকবে না এই সিদ্ধান্ত এবার দেশের জনগণকে নিতে হবে। আসন্ন সঙ্কটে দেশের অবস্থা কোথায় যাবে সেটাও নিয়ে তাদের ভাবতে হবে।

ফখরুল বলেন, গণতন্ত্রের জন্য আমাদের এ লড়াই। দেশের জনগণকে মুক্ত করার এই লড়াইয়ে দেশের জনগণই আমাদের সঙ্গে রয়েছে।

এ সময় উপস্থিত নেতাকর্মী ও সমর্থকদের উদ্দেশে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আপনারা কি খালেদা জিয়ার মুক্তি চান? আপনারা কি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার চান? আপনারা কি ভোটের অধিকার ফিরে পেতে চান? এ সময় সবাই হাত তুলে ফখরুলের সঙ্গে চাই চাই বলে আওয়াজ তুলেন।

এর আগে দুপুর ২টায় পবিত্র কোরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে জনসভা শুরু হয়।

শারীরিক অসুস্থতার কারণে জনসভায় যোগ দিতে পারেননি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। তবে ঢাকা থেকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জনসভায় ব্ক্তব্য দেন তিনি।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়ক ও বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনুর সভাপতিত্বে জনসভায় যোগ দেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, এলডিপির সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ, বিজেপির সভাপতি আন্দালিব রহমান পার্থ, জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না প্রমুখ।

সকল মন্তব্য

মন্তব্য দিতে চান তাহলে Login করুন, সদস্য না হলে Registration করুন।

সকালের আলো

Sokaler Alo

সম্পাদক ও প্রকাশক : এস এম আজাদ হোসেন

নির্বাহী সম্পাদক : সৈয়দা আফসানা আশা

সকালের আলো মিডিয়া ও কমিউনিকেশন্স কর্তৃক

৮/৪-এ, তোপখানা রোড, সেগুনবাগিচা, ঢাকা-১০০০ হতে প্রকাশিত

মোবাইলঃ ০১৫৫২৫৪১২৮৮ । ০১৭১৬৪৯৩০৮৯ ইমেইলঃ newssokaleralo@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত

Developed by IT-SokalerAlo     hit counters Flag Counter